০৬:৫৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মুন্নু মেডিকেল কলেজ অ্যান্ড হাসপাতালে মাদার স্ক্যানু ইউনিটের উদ্বোধন

 

নবজাতক শিশুদের  অত্যাধুনিক   চিকিৎসাসেবা মানিকগঞ্জের জন্য একটি মাইলফলক। মানিকগঞ্জবাসীর দীর্ঘদিনের প্রতীক্ষিত মুন্নু মেডিকেল কলেজ অ্যান্ড হাসপাতালে চালু হলো মাদার স্ক্যানু এবং ক্যাঙ্গারু মাদার কেয়ার  ইউনিট।

শনিবার দুপুরে আনুষ্ঠানিকভাবে মাদার স্ক্যানুর উদ্বোধন করেন মুন্নু মেডিকেল কলেজ অ্যান্ড হাসপাতালের চেয়ারম্যান আফরোজা খান রিতা।  এসময় তার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রতিনিধি ডাক্তার আইশা ডি কস্তা, মেরিয়ান ওয়াশিংটন এবং কেইলি এন রায়ান, কর্নেল মালেক মেডিকেল কলেজ অ্যান্ড হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক ডা. মো. জহিরুল করিম, মুন্নু মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. মো. আখতারুজ্জামান, অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ শহিদুল্লাহ, মুন্নু মেডিকেল কলেজ অ্যান্ড হাসপাতালের পরিচালক মো. জাহাঙ্গীর আলমসহ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ও প্রজন্ম রিসার্স ফাউন্ডেশনের প্রতিনিধি, কর্নেল মালেক মেডিকেল কলেজ ও মানিকগঞ্জ ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের প্রতিনিধিবৃন্দ। মুন্নু মেডিকেল কলেজ অ্যান্ড হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ  জানান, নবজাতক মৃত্যুর হার কমানোর ক্ষেত্রে মাদার স্ক্যানু এবং ক্যাঙ্গারু মাদার কেয়ার ইউনিট  উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখবে। মাদার স্ক্যানুর মাধ্যমে এন আই সি ইউ লেবল টু সেবার দ্বার উন্মোচন হবে। শিগগিরই এন আই সি ইউ লেবল থ্রি সেবার কার্যক্রম শুরু হবে। এর মাধ্যমে বিশেষ করে মানিকগঞ্জে নবজাতক শিশুদের চিকিৎসার জন্য ঢাকায় স্থানান্তর হতে হবে না। মুন্নু মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নবজাতক শিশুদের ক্ষেত্রে  অত্যাধুনিক  এই চিকিৎসাসেবা একটি মাইলফলক।

Tag :
About Author Information

জনপ্রিয় সংবাদ

পারফেক্ট ফুটওয়্যার লিমিটেডের বার্ষিক ডিলার সম্মেলন অনুষ্ঠিত

মুন্নু মেডিকেল কলেজ অ্যান্ড হাসপাতালে মাদার স্ক্যানু ইউনিটের উদ্বোধন

প্রকাশ: ০৪:২৬:৫৫ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১২ মে ২০২৪

 

নবজাতক শিশুদের  অত্যাধুনিক   চিকিৎসাসেবা মানিকগঞ্জের জন্য একটি মাইলফলক। মানিকগঞ্জবাসীর দীর্ঘদিনের প্রতীক্ষিত মুন্নু মেডিকেল কলেজ অ্যান্ড হাসপাতালে চালু হলো মাদার স্ক্যানু এবং ক্যাঙ্গারু মাদার কেয়ার  ইউনিট।

শনিবার দুপুরে আনুষ্ঠানিকভাবে মাদার স্ক্যানুর উদ্বোধন করেন মুন্নু মেডিকেল কলেজ অ্যান্ড হাসপাতালের চেয়ারম্যান আফরোজা খান রিতা।  এসময় তার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রতিনিধি ডাক্তার আইশা ডি কস্তা, মেরিয়ান ওয়াশিংটন এবং কেইলি এন রায়ান, কর্নেল মালেক মেডিকেল কলেজ অ্যান্ড হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক ডা. মো. জহিরুল করিম, মুন্নু মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. মো. আখতারুজ্জামান, অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ শহিদুল্লাহ, মুন্নু মেডিকেল কলেজ অ্যান্ড হাসপাতালের পরিচালক মো. জাহাঙ্গীর আলমসহ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ও প্রজন্ম রিসার্স ফাউন্ডেশনের প্রতিনিধি, কর্নেল মালেক মেডিকেল কলেজ ও মানিকগঞ্জ ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের প্রতিনিধিবৃন্দ। মুন্নু মেডিকেল কলেজ অ্যান্ড হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ  জানান, নবজাতক মৃত্যুর হার কমানোর ক্ষেত্রে মাদার স্ক্যানু এবং ক্যাঙ্গারু মাদার কেয়ার ইউনিট  উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখবে। মাদার স্ক্যানুর মাধ্যমে এন আই সি ইউ লেবল টু সেবার দ্বার উন্মোচন হবে। শিগগিরই এন আই সি ইউ লেবল থ্রি সেবার কার্যক্রম শুরু হবে। এর মাধ্যমে বিশেষ করে মানিকগঞ্জে নবজাতক শিশুদের চিকিৎসার জন্য ঢাকায় স্থানান্তর হতে হবে না। মুন্নু মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নবজাতক শিশুদের ক্ষেত্রে  অত্যাধুনিক  এই চিকিৎসাসেবা একটি মাইলফলক।